দ্বিতীয় সন্তান নেয়ার আগে যে চারটি বিষয় ভাববেন

নতুন এক গবেষণা বলছে, একজন মায়ের দ্বিতীয়বার সন্তান নিতে হলে তার অন্তত এক বছর সময় নেয়া উচিত। এ সময় নেয়া হলে সেটি মা ও শিশুর স্বা’স্থ্য ঝুঁ’কি কমাতে সাহায্য করে। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইনে এ বিষয়ে ১৮ মাস বিরতি নেয়ার পরামর্শ দেয়া আছে।

গবেষকরা বলছেন, সাধারণত দুইবার গ’র্ভধার’ণের মধ্যে সময়ের ব্যবধান কম হলে তা অপ’রিপক্ব শিশু কিংবা আকারে ছোট শিশু জন্ম দেয়ার ঝুঁ’কি তৈরি করে। এক বছরের কম সময়ের মধ্যে গ’র্ভধা’রণ করলে সেটি যে কোনো বয়সের নারীর জন্যই ঝুঁ’কিপূ’র্ণ হতে পারে। তাই দ্বিতীয় সন্তান নেয়ার আগে এই বিষয়টির পাশাপাশি আরো চারটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখবেন।

শারীরিক ও মানসিক প্রস্তুতি
দ্বিতীয় সন্তান নেয়ার আগে ভালো করে ভেবে নিন, সন্তান নেওয়ার জন্য আপনি শা’রীরিক ও মান’সিকভাবে প্রস্তুত কিনা। কারণ আপনার একটি সন্তান রয়েছে, তার জন্য আপনার সময় ও মনোযোগের প্রয়োজন। আরও একটি সন্তানকে প্রয়োজনীয় সময় ও মনোযোগ দেওয়া আপনার পক্ষে সম্ভব হবে কিনা, সেটা আগে ভেবে নিন। শারী’রিকভাবে আপনি তৈরি কিনা, সেটাও দেখে নিতে হবে। কারণ প্রথমবার মা হওয়ার পর আপনার শ’রীরে নানারকম পরিবর্তন ঘটে গেছে। তাই দ্বিতীয় সন্তানের জ’ন্ম দেওয়ার ঝ’ক্কি আপনি সামলে উঠতে পারবেন তো?

ক্যারিয়ারের কথা ভেবে নিন
আপনি যদি কর্মরত থাকেন তাহলে প্রথম সন্তানের জন্মের সময় আপনি কর্মস্থল থেকে একবার ব্রেক নিয়েছেন। আবারও সেই লম্বা ছুটি আপনার ক্যারিয়ারে বাধা সৃষ্টি করবে না তো? অনেক নারীই দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর সফলভাবে কর্মজগতে ফিরে যান। কিন্তু দুটি সন্তানের ঝ’ক্কি সামলে অনেকেই সেটা পারেন না। আপনি কি সিদ্ধান্ত নেবেন তা আপনার ব্যক্তিগত বিষয়। কিন্তু যা করবেন তা ভালো করে ভেবে করবেন। পরে যেন এই নিয়ে আপনাকে পস্তাতে না হয়।

আর্থিকভাবে তৈরি আছেন তো?
সন্তানের জন্ম দেয়া থেকে তাকে বড় করে তোলা, প্রচুর খরচের ব্যাপার। সন্তানের পড়াশোনা ও অন্যান্য বিষয়ে একটি সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারও আজকের দিনে প্রচুর টাকা খরচ করে। দুটি সন্তান মানে এই টাকার পরিমাণ দ্বিগুণেরও বেশি হয়ে যাওয়া।

কারণ দ্বিতীয় সন্তানটি যতদিনে বড় হবে, ততদিনে সবকিছুর দাম আরও বেড়ে যাবে। দুটি সন্তান নিলেও আপনি এই লাইফস্টাইলেই থাকতে পারবেন কিনা, সেটা ভেবে নিন।

প্রথম সন্তানকে প্রস্তুত করুন
আপনি যদি দ্বিতীয় সন্তান নিতে চান, তাহলে আগে থেকে আপনার প্রথম সন্তানকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করে তুলুন। শিগগিরই যে তার একটি ভাই বা বোন আসছে, সেই বিষয়টি তাকে জানান। ভাই বা বোন এলে তাকে যে নিজের জিনিসপত্র ও বাবা-

মাকেও তার সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে, সেটা তাকে বোঝান। এতদিন পরিবারের যাবতীয় মনোযোগ সে একাই পেয়ে এসেছে। হঠাৎ করে দ্বিতীয় সন্তানের আবির্ভাবের ফলে সে নিজেকে গুরুত্বহীন বলে ভাবতে পারে। তার মনে যাতে ছোট ভাই বা বোনের প্রতি কোনোরকম ঈ’র্ষার জন্ম না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

সূত্র: বিবিসি

## কমেন্ট বক্সে মতামত দিনঃ-

Check Also

স্বামী বা স্ত্রী, একে অপরের থেকে যে জিনিসগুলো ভু’লেও লু’কাবেন না

স্ত্রী যেমন স্বামী ছাড়া পরিপূর্ণ নন তেমনি একজন স্বামীও স্ত্রী ছাড়া পরিপূর্ণ নন। সৃষ্টিগতভাবেই আল্লাহ …

Leave a Reply