দুই মিনিটের মধ্যেই তৈরি প্রেসার কুকারে ভাপা পিঠা!

প্রেসার কুকারের ভাপে মাত্র দেড় থেকে দুই মিনিটের মধ্যেই তৈরি করে ফেলা যায় ভাপা পিঠা। বাসায় ভাপা পিঠা তৈরি করাকে যারা ঝক্কি মনে করেন, তারা এই পদ্ধতিতে বানিয়ে দেখতে পারেন।

ভাপা পিঠার জন্য চালের গুঁড়া তৈরি করবেন যেভাবে

আতপ চাল ভালো করে ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। পানি ঝরিয়ে একটি সুতি কাপড় কয়েক ভাঁজ করে উপরে বিছিয়ে দিন। ঘণ্টা খানেক পর চাল ঝরঝরে হয়ে গেলে মেশিনে ভেঙে নিতে পারেন।

পাটায় বেটেও নেওয়া যায়। গুঁড়া তৈরি হলে একটি শুকনা সুতি কাপড়ের উপর ছড়িয়ে শুকিয়ে নিন আরেকবার। সারা বছর ডিপফ্রিজে রেখে সংরক্ষণ করতে পারবেন এই চালের গুঁড়া।

চাইলে কয়েক ধরনের চালের গুঁড়া এক সঙ্গে ব্যবহার করে বানাতে পারেন ভাপা পিঠা। সেক্ষেত্রে আড়াই কেজি আতপ চাল, পৌনে ১ কেজি পোলাওয়ের চাল ও আধা কেজি ভাতের চাল একসঙ্গে গুঁড়া করে নিন।

যেভাবে পিঠা তৈরি করবেন

চালের গুঁড়ার সঙ্গে স্বাদ মতো লবণ মিশিয়ে নিন। অল্প অল্প করে পানি দিয়ে মেখে নিন চালের গুঁড়া। মুঠো করে চালের গুঁড়া নেওয়ার পর যখন ভেঙে পড়বে না, বুঝবেন ঠিক মতো মাখা হয়েছে। ১০ মিনিট রেখে দিন ঢেকে। ১০ মিনিট পর ছোট ছিদ্রযুক্ত চালনিতে চেলে নিন। হাত দিয়ে ঘষে ঘষে চালতে হবে।

পিঠা বসানোর জন্য পছন্দ মতো আকারের বাটি নিন। কেকের মোল্ডের ভেতরেও তৈরি করা যায় পিঠা। আর লাগবে গুড় ও নারকেল। দুইভাবে কাটা নারকেল ব্যবহার করতে পারে। নারকেল কোড়ানো এবং স্লাইস। বাটিতে প্রথমে চালের গুঁড়া ছড়িয়ে উপরে গুড় দিন।

গুড়ের পরিমাণ হবে স্বাদ অনুযায়ী। উপরে নারকেল কোড়ানো দিয়ে আবারও চালের গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিন। এবার একদম উপরে কয়েক স্লাইস নারকেল দিন। পাতলা সুতি সাদা কাপড় পানিতে ভিজিয়ে নিংড়ে নিন। ভেজা কাপড়ের উপর বাটি উল্টো করে ধরে সাবধানে পিঠা নামিয়ে নিন। কাপড়ের উপরের অংশ মুড়ে নিন পিঠাসহ।

একটি বয়ামের উপর হাতলওয়ালা ফানেল বসান। ফানেলের ভেতরের অংশ সমান হলে পিঠা দেখতে ভালো লাগবে। এবার ফানেলের ভেতরে কাপড়সহ পিঠা রেখে দিন।

প্রেসার কুকারে এক বোতল পানি দিয়ে ঢাকনা আটকে চুলায় বসিয়ে দিন উচ্চতাপে। বলক ওঠার আগে সিটি বের হওয়ার অংশ থেকে ক্যাপ খুলে পিঠাসহ ফানেল বসিয়ে দিন।

দেড় থেকে দুই মিনিটের মধ্যেই হয়ে যাবে মজাদার ভাপা পিঠা! পিঠা হয়ে গেলে ফানেল থেকে কাপড় উঠিয়ে প্লেটে নিয়ে নিন। পরিবেশন করুন গরম গরম।

অতিরিক্ত পিঠা রয়ে গেলে মুখবন্ধ বাটিতে রেখে দিন নরমাল ফ্রিজে। খাওয়ার আগে বের করে সামান্য পানি ছিটিয়ে মাইক্রোওয়েভে গরম করে নিন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *